আপনার জন্য তথ্যসমূহ হবু বাবার দায়িত্ব

হবু বাবার দায়িত্ব

একটা সময় ছিল যখন হবু বাবাদের একমাত্র দায়িত্ব ছিল প্রসবের সংকেত পেলেই স্ত্রীকে নিয়ে হাসপাতালে ছোটা এবং হাসপাতালের করিডরে দাঁড়িয়ে একটার পর একটা সিগারেট পোড়ানো। কিন্তু এখন আর সেই দিন নেই। দিন বদলেছে। বদলেছে হবু বাবাদের মানসিকতা। এখকার পুরুষরা অনেক বেশি সচেতন। তারা গর্ভকালীন পুরোটা সময় স্ত্রীর পাশে থাকতে চান। এমনকি ডেলিভারি রুমেও! এটা শুধুই বাবা হওয়ার অপূর্ব অভিজ্ঞতা শেয়ার করার তাগিদে।


বাবা হতে চাইলেই সন্তানের দায়িত্ব যেমন এসে পড়ে, তেমনি দায়িত্ব রয়েছে গর্ভবতী স্ত্রীর প্রতিও। আর এসব দায়িত্ব পালনই আপনাকে নিয়ে আসবে স্ত্রী ও অনাগত সন্তানের আরো কাছাকাছি।


১. গর্ভকালীন প্রতিটি পর্যায়ে স্ত্রীর পাশে থেকে সাহস জোগান।


২. বই বা ওয়েবসাইট পড়ে আপনার স্ত্রীর শরীরে ঠিক কী ঘটছে তা বোঝার চেষ্টা করুন।


৩. নিজের একটি ক্যালেন্ডার বা গাইড বানিয়ে নিতে পারেন আপনার শিশু ঠিক কোন অবস্থায় আছে তা জানার জন্য।


৪. এই সময় হরমোনের তারতম্যর কারণে স্ত্রীর শরীর বা মনমেজাজ হয়তো সব সময় ভালো থাকবে না। বাড়িতে শান্তি বজায় রাখার দায়িত্ব এ সময় আপনি নিন। স্ত্রী দুঃখ বা আঘাত পান এমন কথা নাই বা বললেন।


৫. স্ত্রীর খাবারদাবার, ফিটনেসের ভার নিন। ঠিক পরিমাণে সুষম খাদ্য খাওয়া, বিশ্রামের খোঁজখবর রাখুন। দুজনে একসঙ্গে হাঁটতে যান।


৬. যতটা পারেন স্ত্রীকে সঙ্গ দিন। এক সঙ্গে গান শুনুন, বই পড়ে শোনান, সিনেমা দেখুন। দুজনে মিলে বাচ্চার নাম ঠিক করা একটা মজার সময় কাটানোর বিষয় হতে পারে।


৭. অবশ্যই বাড়ির কাজে স্ত্রীকে সাহায্য করুন। দরকার হলে বাড়ির কাজের জন্য একজন সার্বক্ষণিক লোক নিযুক্ত করতে পারেন।


৮. স্ত্রীর সুবিধার জন্য ওয়াশিং মেশিন, মাইক্রোওয়েভের মতো কিছু 'ফ্রেন্ডলি গ্যাজেটস' কিনে ফেলতে পারেন।


৯. বাথরুমের মেঝে যেন সব সময় শুকনো থাকে, সেদিকে খেয়াল রাখুন।


১০. প্রতি মাসে মেডিক্যাল চেকআপের সময় স্ত্রীর সঙ্গে যাওয়ার চেষ্টা করুন। একান্তই যদি সময় করে উঠতে না পারেন তাহলে ডাক্তারের সাথে ফোনে কথা বলে নিন। মেয়েলি ব্যাপার বলে হেলাফেলা করবেন না।


১১. প্রসবের সময় যত এগিয়ে আসবে স্ত্রীকে শারীরিক, মানসিকভাবে প্রস্তুত করতে শুরু করুন। বারবার ভরসা দিন যে আপনি সব সময় তার পাশে আছেন।


১২. অনেক হাসপাতাল ডেলিভারি রুমে বা অপারেশন থিয়েটারে বাবাদের থাকার অনুমতি দেয়। এমনটা সম্ভব হলে আপনার শিশুর পৃথিবীতে আসার মুহূর্তে উপস্থিত থাকার সুযোগ হেলায় হারাবেন না মোটেও।